রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:৩২ অপরাহ্ন

একটাই পৃথিবী তাকে রক্ষা করতে হবেঃ পলাশ

বিডি নিউজ ৭১ ডেস্কঃ 

সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক দিবস হিসেবে‘ বিশ্ব পরিবেশ দিবস’ প্রতি বছর ৫ জুন সারা বিশ্বে পালিত হয়। পরিবেশ রক্ষার কাজে নিয়োজিত প্রত্যেককে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান জাতীয় শ্রমিকলীগ এর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, সমাজসেবক এবং পরিবেশের একজন অতন্ত প্রহরী আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশ। তিনি বলেন, পৃথিবী আছে মাত্র একটিই। আর এই পৃথিবী ও তার পরিবেশের সংরক্ষণ বা যত্নের দায়িত্ব আমাদেরই।

প্রকৃতির ওপর অতিরিক্ত অত্যাচারের ফলে আমরা ইতিমধ্যে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের ভয়াবহতা প্রত্যক্ষ করছি। জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত জাতিসংঘের আন্তঃসরকার প্যানেল (আইপিসিসি) তাদের সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে সতর্ক করে বলেছে, বৈশ্বিক উষ্ণায়ন এখনই কমানো না গেলে খুব শিগগিরই বিশ্ববাসীকে গুরুতর পরিণতি ভোগ করতে হবে।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে—অবিলম্বে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে বিশ্বে খরা, বন্যা ও তাপপ্রবাহের মতো বিপর্যয় বাড়তেই থাকবে। এ কথা অস্বীকার করার উপায় নেই যে, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এখন অত্যন্ত অনুভূত হচ্ছে। মানুষ এবং প্রকৃতিকে ২০ বছর আগের তুলনায় আরও চরম আবহাওয়া মোকাবিলা করতে হচ্ছে। তাপমাত্রার পরিবর্তন বা ভারী বৃষ্টিপাতের মতো ঘটনাগুলো প্রায়শই ঘটছে। পশুপাখি, কৃষি ও মানুষের মধ্যে ক্রমশ প্রাণঘাতী রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। জাতিসংঘ বলছে যে এই ধরনের প্রবণতা রোধ করতে একটি সুস্থ বাস্তুতন্ত্র এবং সমৃদ্ধ জীববৈচিত্র্য নিশ্চিত করতে হবে। এটা সম্ভব হলে জনগণের কল্যাণ ও জীবনযাত্রার পথ টিকবে।

বাংলাদেশ ১৭০ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশ। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব যেমন, বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, খরা, জলোচ্ছ্বাস, সাইক্লোন, ভূমিকম্প, নদী ভাঙন, এবং জলাবদ্ধতা, মাটির লবণাক্ততা ইত্যাদির কারণে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। দক্ষিণ এশিয়ায় অবস্থিত দেশটি বিশ্বের সবচেয়ে বেশি জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ। এই জলবায়ু পরিবর্তন দেশের কৃষি, অবকাঠামো এবং জীবনযাত্রার উপর ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। ইতোমধ্যেই আমরা সিলেট ও সুনামগঞ্জ অঞ্চলে অকাল বন্যা হতে দেখেছি। যাতে হাওড় অঞ্চলের ফসল বিশেষ করে ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। অস্বাভাবিক তাপমাত্রার কারণে এ বছর কলেরার প্রার্দুভাব দেখা দিয়েছে। ডেঙ্গুসহ অন্যান্য সংক্রামক রোগও বেড়েছে।

ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেও বাংলাদেশ প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। বাংলাদেশ একটি সমতল ও নিচু ভূমি এলাকা নিয়ে গঠিত। জলবায়ু পরিবর্তন বাংলাদেশের নাগরিক এবং সরকারের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হয়ে উঠছে। দেশের ৮০ শতাংশেরও বেশি জমি বন্যা প্রবণ। বাংলাদেশের জনসংখ্যার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ কৃষিকাজে নিয়োজিত, তাই জলবায়ু পরিবর্তন এই কৃষকদের খারাপভাবে প্রভাবিত করবে।

বিশ্বব্যাংক সতর্ক করেছে বাংলাদেশ ২১০০ সালের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ জলবায়ু পরিবর্তনের শিকার হবে। প্রতিবেদনে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা ৩ ফুট বাড়বে বলে অনুমান করা হয়েছে। এতে দেশে ব্যাপক বন্যা হবে এবং ফসলহানি ঘটবে। এতে দারিদ্র্য ও মুদ্রাস্ফীতি বাড়বে বলেও উল্লেখ করা হয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে বিশ্ব পরিবেশ দিবস উদযাপন অত্যন্ত গুরুত্ব বহন করে। পরিবেশ নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে “বিশ্ব পরিবেশ দিবস” পালন নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করি। কারণ এই দিনটি আমাদেরকে প্রকৃতির সাথে পুনরায় সংযোগ স্থাপন করার কথা মনে করিয়ে দেয়। কখনও কখনও আমরা ভুলে যাই যে প্রাকৃতিক ব্যবস্থা আমাদের জীবন যাত্রার কল্যাণে কিভাবে ভূমিকা রাখে। যেহেতু আমরা প্রকৃতির অংশ, এবং আমরা এটির উপর নির্ভরশীল এটিকে রক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধিতে এই দিবসটি উদযাপন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এটি আমাদের মাঝে সচেতনতা যেমন বাড়ায় তেমনি এটির রক্ষায় আমাদেরকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করে। আমাদের একটাই পৃথিবী কাজেই এই সুন্দর পৃথিবীটিকে রক্ষার দায়িত্ব আমাদেরকেই নিতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2018 bdnews71
Design & Developed by M Host BD