সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন

ধর্ষকের পরিণতি ইহাই,ধর্ষকরা সাবধান

বিডি নিউজ ৭১ ডেস্ক : ছয় দিনের মাথায় ঝালকাঠির রাজাপুরে রাকিব নামে গণধর্ষণ মামলার আরও একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।যার গলায় ঝোলানো চিরকুটে লেখা রয়েছে ‘ধর্ষকের পরিণতি ইহাই’।এতে আরও লেখা আছে ধর্ষকরা সাবধান। হারকিউলিস।

শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার রাজাপুর সদর ইউনিয়নের আঙ্গারিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত ভাটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত রাকিব পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামের বাসিন্দা এবং ভান্ডারিয়া থানার এক স্কুল ছাত্রী গণধর্ষণ মামলার আসামী বলে পুলিশ প্রাথকিমভাবে জানিয়েছেন।

রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মঈদুদ্দিন জানান, দুপুরে ওই এলাকায় লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। রাজাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাথায় রক্তাত্ত জখমের চিহ্ন অবস্থায় তাঁর লাশ উদ্ধার করে। নিহতের বুকে একটি কাগজের চিরকুট ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীর নাম উল্লেখ করে লেখা রয়েছে।

সে দুই সপ্তাহ আগে ভাণ্ডারিয়ায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি রাকিব হাসান বলে পুলিশের ধারণা।পুলিশের উধ্বর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।ওই মামলার অপর আসামি হাসান সজল জোমাদ্দারকেও হত্যা করে গলায় চিরকুট বেঁধে লাশ ফেলে রাখা হয়েছিল ধানক্ষেতে।

কে বা কারা তাদের হত্যা করে লাশ ফেলে গেছে, সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারছে না পুলিশ।রাকিবের লাশের সঙ্গে চিরকুটে হত্যাকারী নিজের পরিচয় হিসেবে লিখে রেখে গেছে গ্রিক পুরানের বীর হারকিউলিসের নাম।

পুলিশ পরিদর্শক জাহিদ বলেন, রাকিবের মাথায়, মুখে ও পিঠে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

গত ১২ জানুয়ারি সকালে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার হেতালিয়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে পানের বরজে নিয়ে দেলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়।ওই ঘটনার পর মেয়েটির পরিবার গত ১৭ জানুয়ারি ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করে। শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ভিটাবাড়ি গ্রামের আবুল কালামের ছেলে রাকিব হাসান (২৮) এবং নদমুলা গ্রামের আলম জোমাদ্দারের ছেলে সজল জোমাদ্দারকে (২৮) সেখানে আসামি করা হয়। গত ২৬ জানুয়ারি কাঁঠালিয়া উপজেলার একটি ধানক্ষেত থেকে সজলের লাশ উদ্ধারের কথা জানায় পুলিশ।িবি : ছয় দিনের মাথায় ঝালকাঠির রাজাপুরে রাকিব নামে গণধর্ষণ মামলার আরও একজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।যার গলায় ঝোলানো চিরকুটে লেখা রয়েছে ‘ধর্ষকের পরিণতি ইহাই’।এতে আরও লেখা আছে ধর্ষকরা সাবধান। হারকিউলিস।

শুক্রবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার রাজাপুর সদর ইউনিয়নের আঙ্গারিয়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত ভাটা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত রাকিব পার্শ্ববর্তী পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুলা গ্রামের বাসিন্দা এবং ভান্ডারিয়া থানার এক স্কুল ছাত্রী গণধর্ষণ মামলার আসামী বলে পুলিশ প্রাথকিমভাবে জানিয়েছেন।

রাজাপুর থানার ওসি (তদন্ত) মঈদুদ্দিন জানান, দুপুরে ওই এলাকায় লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। রাজাপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মাথায় রক্তাত্ত জখমের চিহ্ন অবস্থায় তাঁর লাশ উদ্ধার করে। নিহতের বুকে একটি কাগজের চিরকুট ধর্ষণের শিকার হওয়া নারীর নাম উল্লেখ করে লেখা রয়েছে।

সে দুই সপ্তাহ আগে ভাণ্ডারিয়ায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি রাকিব হাসান বলে পুলিশের ধারণা।পুলিশের উধ্বর্তন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।ওই মামলার অপর আসামি হাসান সজল জোমাদ্দারকেও হত্যা করে গলায় চিরকুট বেঁধে লাশ ফেলে রাখা হয়েছিল ধানক্ষেতে।

কে বা কারা তাদের হত্যা করে লাশ ফেলে গেছে, সে বিষয়ে কিছুই বলতে পারছে না পুলিশ।রাকিবের লাশের সঙ্গে চিরকুটে হত্যাকারী নিজের পরিচয় হিসেবে লিখে রেখে গেছে গ্রিক পুরানের বীর হারকিউলিসের নাম।

পুলিশ পরিদর্শক জাহিদ বলেন, রাকিবের মাথায়, মুখে ও পিঠে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

গত ১২ জানুয়ারি সকালে ভাণ্ডারিয়া উপজেলার হেতালিয়া গ্রামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে পানের বরজে নিয়ে দেলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়।ওই ঘটনার পর মেয়েটির পরিবার গত ১৭ জানুয়ারি ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করে। শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের ভিটাবাড়ি গ্রামের আবুল কালামের ছেলে রাকিব হাসান (২৮) এবং নদমুলা গ্রামের আলম জোমাদ্দারের ছেলে সজল জোমাদ্দারকে (২৮) সেখানে আসামি করা হয়। গত ২৬ জানুয়ারি কাঁঠালিয়া উপজেলার একটি ধানক্ষেত থেকে সজলের লাশ উদ্ধারের কথা জানায় পুলিশ।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2018 bdnews71
Design & Developed by M Host BD