বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ১২:১৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
স্বপ্নময় হোক শিশুদের জীবনঃ পলাশ এক বিষয়ে ফেল করেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মডেল মসজিদগুলো হতে ইসলামের সঠিক মর্মবাণী প্রচার হবে: প্রধানমন্ত্রী জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক ও প্রফেশনালে ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে হবে এসএসসি পরীক্ষা : শিক্ষাবোর্ড পাকিস্তানের দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ৬ দফা ছিল বাঙালির মুক্তির সনদঃ পলাশ ইসরায়েলে কনসার্ট বর্জন করলেন ৬০০ আন্তর্জাতিক শিল্পী বিসিবি সভাপতি পাপনের জন্মদিনে শুভেচ্ছা- আলীগঞ্জ ক্লাব সভাপতি পলাশ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় বেড়েছে মৃত্যু আমার কাছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার মেসেজ বেশি আছে: শিক্ষামন্ত্রী

বাংলাদেশের ইতিবাচক পরিবর্তনের অগ্রনায়ক শেখ হাসিনা : পলাশ

বিডি নিউজ ৭১ ডেস্কঃ

১৭ মে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৪০তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পুনরুদ্ধার এবং সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার অভিযাত্রায় বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন একটি তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা।

দেশরত্ন শেখ হাসিনা স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শ্রমিক নেতা আলহাজ্ব কাউসার আহম্মেদ পলাশ এর বক্তব্য নিচে তুলে ধরা হলোঃ

শেখ হাসিনা দেশে ফেরার দিনটিতে ঢাকার রাজপথ মিছিল আর স্লোগানে প্রকম্পিত ছিলো।

জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব কাউসার আহম্মেদ পলাশ বলেছেন, ১৯৭৫ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যাকান্ডের পর দীর্ঘ ৬ বছরের নির্বাসন শেষে ১৯৮১ সালের এই দিনে দেশের মাটিতে পা রাখেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। দেশে ফেরার দিনটিতে রাজধানী ঢাকা মিছিলের নগরীতে পরিণত হয়। সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত ঢাকার রাজপথ গুলো মিছিল আর স্লোগানে প্রকম্পিত হয়। শেখ হাসিনা টানা চার দশক ধরে সফলতার সঙ্গে আওয়ামী লীগ এর নেতৃত্ব দিয়ে চলেছেন। সেই সঙ্গে তার যোগ্য নেতৃত্বে চার বার রাষ্ট্রক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হয়ে বর্তমান মেয়াদসহ ১৭ বছর দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার ১৭ মে সন্ধায় সদর উপজেলার আলীগঞ্জ লেবার হলে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের উদ্যেগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্ব-দেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেছেন।

No description available.

তিনি আরও বলেন, নানা চড়াই-উৎড়াই, কারাবরণ, মৃত্যুর মুখোমুখী হওয়াসহ অনেক ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগকে আজকের অবস্থানে এনে দাঁড় করিয়েছেন। তার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের এই সময়ের শাসন আমলেই দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নতুন মাত্রা সূচিত হয়েছে। স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সম্পন্ন করেছেন তিনি। ইসলামের নামে যারা জঙ্গিবাদ নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে তাদের আইনের মাধ্যমে নির্মূল করছেন। শ্রমজীবি মেহনতী শ্রমিকের নূন্যতম মজুরি কয়েক ধাপে বৃদ্ধি করে আট হাজার টাকা করেছেন। শ্রমিক কলান ফাউন্ডেশন করে দিয়েছেন। যা থেকে নিহত শ্রমিকের জন্য দুই লক্ষ আহত শ্রমিকের জন্য একলক্ষ টাকা ও শ্রমিকের পরিবারের সদস্যরা আহত কিংবা অসুস্থ হলে আর্থিক সহযোগী পাচ্ছে। বাংলার মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু রাজধানীসহ দেশে বিভিন্নস্থানে ফ্লাইওভার ও প্রসস্থ্য সড়ক করে দেশে যোগযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। বাংলাদেশ আজ স্বল্পন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। তার হাত ধরেই বাংলাদেশ ডিজিটাল দেশে পরিণত হয়েছে। আলোচনা শেষে শ্রমিক নেতা পলাশ নিজেই প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতার সাথে দীর্ঘায়ু কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন। এসময় তিনি জাতিয় শ্রমিকলীগের পক্ষথেকে ইজরাইলে মুসলমানের উপর নির্মম হত্যা ও নির্যাতনের তিব্র প্রতিবার জানান।

কুতুবপুর ইউনিয়নের মেম্বার ও ফতুল্লা থানা লোড আনলোড শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গির আলমের সভাপতিত্বে অন্যান্যে নেতৃবৃন্দের উপস্থিত ছিলেন জেলা ইউনাইটে ফেডারেশন অব গার্মেমেন্টস ওর্য়াকার্স এর সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন সেন্টু ও সাধারণ সম্পাদক কবির হোসেন রাজু, আলীগঞ্জ ট্রাক চালক সমিতির সভাপতি আবুল হোসেন, জেলা ইমারত নির্মান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি গোলাম কিব্রিয়া সাত্তার ও সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দেলু, শ্রমিকনেতা ফিরোজ মিয়া, শ্রমিক নেতা উবাইদুর রহমান ওবায়েদ, শ্রমিক নেতা সালাউদ্দিন, শ্রমিক নেতা রয়েল, শ্রমিক নেতা লিটন প্রমুখ্য।

নিউজটি শেয়ার করুন...

আপনার মন্তব্য প্রদান করুন...


© All rights reserved © 2018 bdnews71
Design & Developed by M Host BD